ঢাকা, মঙ্গলবার - ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আলোচিত সংবাদ

শ্বাসকষ্টের রোগী বাঁচাতে অক্সিজেন সেবা নিয়ে নাছির ফারুকী

[print_link]

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) এর সংক্রমণ শুরুর পর থেকে চারদিকে আইসিইউ সংকট নিয়ে চলছে হাহাকার। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ঝুঁকিপূর্ণ করোনা রোগীদের বাঁচাতে আইসিইউর চেয়ে বেশি প্রয়োজন কৃত্রিম অক্সিজেন সরবরাহ।

চট্টগ্রামে গড়ে ২শ’ জন করোনা আক্রান্ত রোগী নতুন করে যুক্ত হচ্ছে। এরমধ্যে কমপক্ষে ২০ থেকে ৩০ জনই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। এছাড়া উপসর্গ নিয়ে এসে হাসপাতালে ভর্তি হতে না হতেই শ্বাসকষ্টে মারা যাচ্ছেন প্রতিদিন কমপক্ষে ১০ থেকে পনের জন।

করোনা চিকিৎসায় রোগীদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন হয় অক্সিজেন সাপোর্টের। এ করোনা ভাইরাস যেহেতু ফুসফুসের ক্ষতি করছে তাই অক্সিজেন সাপোর্টের বিকল্প কিছু নেই। স্বাভাবিকভাবে ৯০ শতাংশের নিচে অক্সিজেন লেভেল নেমে গেলে তখন সিলিন্ডার থেকে অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে। এছাড়া মুমুর্ষ অবস্থায় অক্সিজেনের চাপ বেশি প্রয়োজন হয়। সে সময় সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপোর্ট খুব কার্যকর এবং একই সাথে হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা থাকলে খুব সহজে রোগী অক্সিজেন সাপোর্ট পেয়ে থাকে।

আরও পড়ুন  চট্টগ্রামে আরও আক্রান্ত ১৭১ জন

চট্টগ্রামের হাটহাজারির এক গ্রামে বৃদ্ধার বেড়েছে শ্বাসকষ্ট। কয়েকটি হাসপাতালে কল দিয়েও মিলেনি সাড়া। কেউ ভর্তি করাবে না। নিরুপায় হয়ে পরিবার থেকে কল দিল নাছির ফারুকী নামে এক বড় ভাইকে। গভীর রাতেই নাছির ফারুকী অক্সিজেন সরবরাহ করলেন বৃদ্ধার বাড়িতে।

শুধু এমন একটি ঘটনাই নয়, হাটহাজারির শিকারপুর ইউনিয়নে কারও অক্সিজেন প্রয়োজন হলে সিলিন্ডার দিচ্ছেন নাছির ফারুকী। পেশায় ব্যবসায়ী হলেও নেশায় নাছির ফারুকী সমাজসেবক।

আরও পড়ুন  চট্টগ্রামে আরও করোনা শনাক্ত ৭৩ জন

যে মুহুর্তে শ্বাসকষ্ট রোগীদের জন্য হাসপাতালের দুয়ার বন্ধ সে মুহুর্তে একটি ইউনিয়নের মানুষের মানসিক স্বস্তির জায়গা তৈরি করেছে টগবগে এ যুবক।

হাটহাজারির শিকারপুর ইউনিয়নের ভরাপুকুর এলাকার মৃত হাজী আবদুর রহমান সওদাগরের সর্ব কনিষ্ট পূত্র নাছির ফারুকী ইতোমধ্যে কিনেছেন ০৩ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার।

শনিবার (১৩ জুন) এসব সিলিন্ডার নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে অক্সিজেন সরবরাহের ঘোষণা দেন। তাতে দিয়ে দেন নিজের মোবাইল নম্বরও। শনিবার রাতের মধ্যেই শ্বাসকষ্ট রোগীর স্বজন যোগাযোগ করে নাছির ফারুকীর সঙ্গে। নাছির তাদের ঘরে পৌঁছে দেন অক্সিজেন।

নাছির ফারকী বলেন, যেভাবে শ্বাসকষ্ট রোগীদের হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটছে, তা দেখে চিন্তা করলাম নিজেই কিছু অক্সিজেন সংগ্রহ করি শ্বাসকষ্ট রোগীদের জন্য। সে চিন্তা থেকেই ০৩টি সিলিন্ডার সেট কিনলাম। ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার প্রথম দিনেই ০৩টি সিলিন্ডার নিয়ে গেছে এলাকার মানুষ। আমি আহবান জানাবো, যাদের সুযোগ আছে তারা যেন অক্সিজেন সিলিন্ডার কিনে মানুষের পাশে দাঁড়ায়। তাহলে শুধুমাত্র অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর হার কমে যাবে।

আরও পড়ুন  করোনার সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে চট্টগ্রাম

তিনি আরও বলেন, আমার নাম্বার যোগ করলাম যে কেউ যে কোন সময় আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। যদি কারো জীবন বাঁচাতে পারি তবে আমার প্রচেষ্টা সার্থক হবে। ইতোমধ্যেই ২৫/৩০ জনের কাছে সরবরাহ করেছি। ০১৯৭৯-২৯২৯৭৭ জরুরী প্রয়োজনে।

আলোচিত সংবাদ

এ বিভাগের আরও

সর্বশেষ