ঢাকা, রবিবার - ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আলোচিত সংবাদ

চট্টগ্রাম করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় স্থান

[print_link]

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণে ঢাকার পর দ্বিতীয় হটস্পট ছিল নারায়ণগঞ্জ। কিন্তু সেই নারায়ণগঞ্জকে পেছনে ফেলে এখন দ্বিতীয় স্থান দখল করেছে চট্টগ্রাম। চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ শনাক্তের সংখ্যা ২ হাজার ৯৮৫ জন। আর নারায়ণগঞ্জে ২ হাজার ৫৩২ জন।

রবিবার (৩১ মে) দুপুরে এ পরিসংখ্যানের কথা জানান, চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বী। হতাশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ক্ষেত্রে অসচেতনতার কারণে চট্টগ্রামে হু হু করে বাড়ছে করোনা সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা।

তিনি জানান, চট্টগ্রামে প্রথম করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয় ৩রা এপ্রিল। ওই মাসের শেষ পর্যন্ত মোট করোনা শনাক্ত ছিল ৭৩ জন।

আরও পড়ুন  শাহজাহান সিরাজ আর নেই

কিন্তু রমজানের শুরু থেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ভেঙে পড়ায় মে মাসে এসে হু হু করে বাড়তে থাকে করোনা সংক্রমিত রোগী। যা গতকাল রোববার পর্যন্ত এ সংখ্যা ২ হাজার ৯৮৫ জনে পৌঁছেছে।

সিভিল সার্জন বলেন, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ২৭২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৯৫ জনের এবং সিভাসু ল্যাবে ১৩০টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৩ জনের করোনা পজেটিভ পাওয়া যায়।

তবে কক্সবাজার ল্যাবে চট্টগ্রামের ৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলেও কোন রোগী শনাক্ত হয়নি। এছাড়া এইদিন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবের ফলাফল পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন  সামাজিক দূরত্ব বাস্তবায়নে সেনাবাহিনী

তিনি আরও বলেন, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৯১ জন চট্টগ্রাম মহানগর এলাকার এবং ২৭ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা ২ হাজার ৯৮৫ জন। মৃত্যুবরণ করেছেন ৭৫ জন। হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ২২৪ জন।

সংশ্লিষ্টদের মতে, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের প্রায় এক মাস পরে করোনা সংক্রমণ শুরু হয় চট্টগ্রামে। কিন্তু সংক্রমণ শুরুর প্রথম মাসে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে থাকলেও দ্বিতীয় মাসে চট্টগ্রামে করোনার বিস্ফোরণ ঘটে। করোনা সংক্রমণে দেশে এখন সবচেয়ে বিপজ্জনক এলাকা চট্টগ্রাম।

আরও পড়ুন  চট্টগ্রামে নতুন করে করোনা শনাক্ত ৬১ জন

চট্টগ্রামের মধ্যে সবচেয়ে বিপজ্জনক এলাকা এখন উত্তর চট্টগ্রামের হাটহাজারি।

বিশেষজ্ঞদের মতে, অনিয়ন্ত্রিত চলাচল ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক প্রায় উন্মুক্ত থাকায় চট্টগ্রামে করোনার বিস্তার ঘটছে দ্রুত। ঈদের ছুটি শেষে মানুষ নগরে ফিরতে শুরু করায় এ পরিস্থিতির আরো মারাত্মক বিপর্যয়ের দিকে যাচ্ছে।

চট্টগ্রাম করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় স্থান ফলে ঝুকিঁতে কয়েক লাখ মানুষ। প্রয়োজন প্রশাসনিক কর্মপরিকল্পনা।

আলোচিত সংবাদ

এ বিভাগের আরও

সর্বশেষ